ভূঁইফোড় সাংবাদিক গণমাধ্যমের হুমকি!

সাংবাদিকতা নিঃসন্দেহে একটি মহান পেশা। যুগে যুগে দেশ ও জাতির কল্যাণে সাংবাদিকদের ভূমিকা অতুলনীয়। একটি দেশ বা জাতির প্রকৃত চিত্র বুঝতে হলে সাংবাদিকদের বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের ভূমিকা অপরিসীম। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় থেকে আমাদের দেশের সাংবাদিকেরা জীবন বাজী রেখে প্রতিনিয়ত দেশে আসল চিত্র তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। কখনও কখনও অনেক সাহসী সাংবাদিকের জীবন দেওয়ার নজিরও রয়েছে। জেল-জুলুম, জরিমানা, মানহানি ও অত্যাচারিত হওয়া প্রায় নিত্যদিনের ঘটনা।

সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন ভুইফোঁড় অনলাইন পোর্টালের সাংবাদিক নামধারী ব্যক্তিদের উৎপাতে অনেকেই সংবাদ ও সাংবাদিকদের ওপর আস্থা হারিয়ে ফেলছেন। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এই সকল ভূঁইফোড় সাংবাদিক নিজেদেরকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে জনগণকে নানাভাবে ভয়-ভীতি দেখিয়ে বিভ্রান্ত করে চলেছেন। কখনও কখনও মানুষের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে হয়রানির অভিযোগও কম নয়। পাশাপাশি গুজব ছড়াতেও তারা বেশ পটু। এতে একদিকে গণমাধ্যমের সুনাম ক্ষুণ্ণ হচ্ছে, অন্যদিকে সাধারণ জনগণও বিপাকে পড়ছেন।

ভূঁইফোড় এসব অনলাইন পোর্টালে কিছুদিন কাজ করে রাতারাতি অনেকেই সাংবাদিক বনে যাচ্ছে। অনেকে আবার ফেসবুকসহ নানা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের নামের আগে সাংবাদিক যুক্ত করে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কোন গোষ্ঠী বা নিজের স্বার্থ হাসিল করে চলেছে।

এই সমস্ত ভূঁইফোড় সাংবাদিক ও ভূঁইফোড় অনলাইন পোর্টালের কার্যকলাপে প্রকৃত ত্যাগী সাংবাদিকদের মানহানি হচ্ছে পাশাপাশি সাংবাদিকদের উপর থেকে সাধারণ মানুষদের আস্থা উঠে যাচ্ছে।
তবে আশার বিষয়, সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের তথ্যমন্ত্রণালয় কর্তৃক ৯২টি অনলাইন পোর্টালকে নিবন্ধিত করেছে। এতে হয়তো কিছুটা এই সকল ভূঁইফোড় সাংবাদিকের উৎপাত হ্রাস পাবে।
এইসমস্ত ভূঁইফোড় সাংবাদিকদের কার্যকলাপ রুখতে সাংবাদিকতা করা বা সাংবাদিক হওয়ার জন্য নূন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতার বিধান রাখা এখন সময়ের দাবি।

 


সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগ
৪৯তম আবর্তন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *