আপনি এখানে
প্রচ্ছদ > প্রতিবেশি > মায়ানমার

চীন সীমান্তে মিয়ানমারের এক ডজন সেনা নিহত

প্রাচ্যনিউজ ডেস্ক: চীন সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় আদিবাসী বিদ্রোহী যোদ্ধাদের সঙ্গে একের পর এক সংঘর্ষে মিয়ানমারের কয়েক ডজন সেনা নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় দৈনিক 'গ্লোবাল নিউ লাইট অব মিয়ানমার'-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, এসব সংঘর্ষের কারণে কয়েক দশক ধরে চলা আদিবাসী বিরোধের অবসান ঘটাবেন বলে মিয়ানমারের নেত্রী

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মুখ খুললেন ড. ইউনূস, জাতিসংঘকে খোলা চিঠি

তিনি শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েও ঘরের পাশের আরাকানে শান্তি প্রতিষ্ঠায় কোন ভূমিকা গ্রহণ করছেন না বলে দীর্ঘদিন থেকে মানুষের অভিযোগ। রোহিঙ্গাদের উপর চলমান বার্মিজ গণহত্যায় তাঁর নীরবতার তীব্র সমালোচনা বাস্তবে ও সোস্যাল মিডিয়ায় চলেছে। তিনি ২০০৬ সালে শান্তিতে নোবেল ‍বিজয়ী ক্ষুদ্র ঋণের প্রতিষ্ঠািতা ড. মুহাম্মদ ইউনূস। মিয়ানমারের রোহিংঙ্গা সংকট সমাধানে

অং সান সু চিকে রোহিঙ্গা শিশুদের প্রশ্ন

সকালে ঘুম থেকে উঠেই চমকে উঠলেন অং সান সু চি। জানালার কাঁচ দিয়ে নিচে তাকাতেই দেখতে পেলেন তার বাড়ির সামনে কয়েকশো ছেলে মেয়ে দাঁড়িয়ে আছে। তারা তার বাড়ির দিকে চেয়ে আছে। কিন্তু অবাক করা ব্যাপার হলো তাদের প্রত্যেকের মুখ সাদা কাপড় দিয়ে ঢাকা। দেখে বোঝার উপায় নেই তারা কারা, কোথা

রোহিঙ্গা মরলে কাঁদেনা কেউ, কেউনা

রোহিঙ্গা মরলে কাঁদেনা কেউ, কেউনা , কেউনা নাফের তীরে মানব সভ্যতা খুন হয় বার্মিজ শয়তানের বাচ্চাদের হাতে আহা ! কেউ আসেনা বৌদ্ধ সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় যদি রাগ করে বড় ভাই গণচীন যদি মিনমিন করে পাজি মার্কিন বেহায়ার মত চুপ এখন রাশিয়া ও পুতিন সুকি শূকরনী থেকে সুদি ডইউনুস সব ভন্ড, সব গন্ড, ইবলিশ দন্ড জাতি ধ্বসে যায় আরাকানে জাতি

ভারতের প্রতিরক্ষমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফর : একটি বিশ্লেষণ

সম্প্রতি ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী তাঁর তিনবাহিনীর কর্মকর্তাদের নিয়ে বাংলাদেশ সফরে এসেছিলেন। এই সফরের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে আওয়ামের খুব একটা জানা নেই। কারণ আমাদের দেশীয় মিডিয়া কেন জানি একেবারে চুপচাপ। দু/একটা কলামে খানিকটা বিশ্লেষণ উঠে এসেছে এই সফর নিয়ে। এরই একটা নিউ এজ পত্রিকায় লিখেছেন সাবেক ভারতীয় কূটনীতিক এবং ভু-রাজনীতি বিশ্লেষকএমকে

বাংলাদেশ ও মায়ানমারের সামরিক শক্তির তুলনা

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মায়ানমারের সাথে সীমান্ত উত্তেজনায় অনেকেই এই দুই দেশের সামরিক শক্তি সম্পর্কে কৌতূহল প্রদর্শন করছেন। মায়ানমার বাংলাদেশের প্রায় দুই যুগ পূর্বে স্বাধীন হয়েছে তাই কিছু ক্ষেত্রে এগিয়ে থাকবে এটাই স্বাভাবিক তবে বাংলাদেশের সামরিক বাহিনী অনেক বেশী পেশাদার, সাহসী, সুশৃঙ্খল এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। আসুন দেখে নেই দুই দেশের সামরিক শক্তির তুলনা। গ্রাউন্ড

একদিন রোহিঙ্গারাও স্বাধীন ছিলো

জলে কুমির ডাঙ্গায় বাঘ । এই প্রবাদটা হয়ত আমরা কেবল শুনেছি কিন্তু রোহীঙ্গা নামের জাতীগোষ্ঠিটি এই প্রবাদের বাস্তবতা টের পেয়েছিল,পাচ্ছে এবং বিশ্ব সম্প্রদায়ের বিবেক না জাগলে পেতে থাকবে অনাগত ভবিষ্যতেও । কিন্তু এরকম ছিল না রোহিঙ্গা ইতিহাস। নিজ গৃহে প্রবাসী হওয়ার অবস্থা তাদের ছিল না, তারাও স্বাধীন ছিল একদিন। একথা প্রচলিত

চলমান রোহিঙ্গা নির্যাতনঃ দক্ষিণ কোরিয়ার মিয়ানমার দূতাবাসের সামনে প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিক্ষাভ

মিয়ানমারের আরাকান বা রাখাইন প্রদেশের আদিবাসী রোহিঙ্গাদের উপর চলমান হত্যা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে অবস্থিত মায়ানমার দূতাবাসের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে প্রবাসী বাংলাদেশী শ্রমিকরা। রবিবার  দুপুর ১২ টায় সিউলের ইয়ংসানগুতে অবস্থিত মায়ানমার দূতাবাসের একেবারে সামনে শান্তিপূর্ণ এ প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে দক্ষিণ  কোরিয়ায়

রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য করার আছে অনেক কিছু

মানুষ যেখানে প্রতিনিয়ত নির্মমভাবে মারা পড়ছে, সেখানে একটা টিকটিকির জীবন কিইবা মূল্য রাখে! সর্বশেষ তাজিয়া মিছিলের দিনে শোকাগ্রস্থ সেই সকালে এক দৃশ্য দেখে বিস্ময় জেগেছিল আমার নাগরিক স্বার্থপর মনে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশ পথে ‘মুক্তি ও গণতন্ত্র’র স্লোগানে নির্মিত বিশাল তোরণের নিচে এক সূফী ভাইকে দেখলাম ফুটপাতে হাত লাগিয়ে কি যেন

রোহিঙ্গা মুসলমানঃ ইতিহাস ও বাস্তবতা

রোহিঙ্গা মুসলমান বিষয়ে জানা যায় ১৭৯৯ সালে প্রকাশিত "বার্মা সাম্রাজ্য"তে। এতে ব্রিটিশ ফ্রাঞ্চিজ বুচানন-হ্যামিল্টন উল্লেখ করেছেন, "মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সঃ)-এর আদর্শের অনুসারীরা",যারা অনেকদিন ধরে আরাকানে বসবাস করছেন, তাদেরকে "রুইঙ্গা" বা "আরাকানের অধিবাসী" বলা হয়। রোহিঙ্গা আদিবাসী জনগোষ্ঠী পশ্চিম মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের একটি উলেখযোগ্য নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী। তাঁরা মুসলমান। রোহিঙ্গাদের আলাদা ভাষা

উপরে